ব্র্যাক কী

আমরা দরিদ্র মানুষের সমস্যা সমাধানকল্পে নানা ধরনের ক্ষেত্র তৈরি করে দিই, যাতে তারা তাদের সম্ভাবনার বিকাশ ঘটিয়ে নিজের জীবনে তা বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়।

বর্তমানে এশিয়া ও আফ্রিকার মোট ১২ টি দেশে আমরা কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছি।

কোনো একটি কর্মপরিকল্পনা ছোটো আকারে গ্রহণ করে, পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে আমরা তার উৎকর্ষ সাধন করি এবং ব্যয়সাশ্রয়ী উপায়ে, মান বজায় রেখে ব্যাপক আকারে সেই কর্মকাণ্ডের বিস্তার ঘটাই।

কেবল বিস্তার ও কর্মপরিধির জন্য নয় বরং সদা উদ্ভাবনী মনোভাব এবং নিজেদের ভুলত্রুটিগুলো সংশোধন করে নেওয়ার বৈশিষ্ট্যের কারণেই আমরা স্বতন্ত্র। আমরা বিশ্বাস করি, মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের মূল চালক সে নিজেই। আমরা থাকি সহায়কের ভূমিকায়।

ব্র্যাক একটি উন্নয়ন সংস্থা। তৃণমূল পর্যায়ের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সংগঠিত করে বৃহত্তর অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে তাদের ক্ষমতায়নের অঙ্গীকার নিয়ে এই সংস্থাটি কাজ করে যাচ্ছে। জনগোষ্ঠীভিত্তিক ব্র্যাকের বিভিন্ন উদ্ভাবনা যথা, ক্ষুদ্রঋণ, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, কৃষি, আইনসহায়তা, সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ, জীবিকা সংস্থান, অতিদরিদ্রদেরকে সম্পদ হস্তান্তর, উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ প্রভৃতির মাধ্যমে সমাজের অধিকারবঞ্চিত প্রান্তিক জনগোষ্ঠী তাদের সুপ্ত সম্ভাবনা বিকাশের পথ খুঁজে পেয়েছে।

১৯৭২ সালে ব্র্যাক তার যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে এর ১ লক্ষ ২০ হাজার কর্মী বিশ্বব্যাপী ১১টি দেশে ১৩৮ মিলিয়ন মানুষের জীবনসংগ্রামে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। উন্নয়নক্ষেত্রে আমরা এমন একটি নতুন ধারার প্রবর্তন করেছি, যা উন্নয়ন কর্মসূচিকে সামাজিক উদ্যোগের সঙ্গে সমন্বিত করেছে এবং একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠান ও সেবাগ্রহীতাদের স্বাবলম্বনের পথে এগিয়ে দিয়েছে। সামাজিক সমস্যা সমাধানে উদ্যোগ নিয়ে, পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে ভুলভ্রান্তিগুলো দূর করে অল্প খরচে এবং দক্ষতার সঙ্গে ব্র্যাক তার কাজের পরিধির দ্রুত বিস্তার ঘটিয়েছে।

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা