পাহাড়ের দেশ বামিয়ান

২০১০ সালের ১৭ অক্টোবর আফগানিস-ানে গিয়ে পৌঁছলাম। যাওয়ার পর জানতে পারলাম আমার কর্ম-এলাকা হবে বামিয়ান প্রদেশ। বামিয়ান দুর্গম এলাকা। চারদিকে শুধু পাহাড় আর পাহাড়। পাশে ছোট ছোট বাড়িঘর। সেখানে সহজসরল মানুষের বাস। অন্য প্রদেশগুলোর তুলনায় জননিরাপত্তা পরিসি'তিও তুলনামূলকভাবে ভাল। শীতকালে  প্রচণ্ড শীত পড়ে এবং সমস- এলাকা বরফে আচ্ছন্ন থাকে। ২৮ অকটোবর কান্ট্রিপ্রধান ফজলুল হক আমাকে সঙ্গে নিয়ে বিমানযোগে বামিয়ান গেলেন। সংশ্লিষ্ট সরকারি অফিসে গিয়ে তিনি আমাকে পরিচয় করিয়ে দিলেন। ধারণা হল, আমি বামিয়ান প্রদেশে ব্র্যাকের কর্মসূচি এগিয়ে  নিতে সক্ষম হব।

বামিয়ান প্রদেশের তিনটি জেলায় যথা বামিয়ান সিটি, ইয়োকালং এবং পাঞ্জাবে ব্র্যাকের কর্মসূচি বিস-ারের কাজে লেগে গেলাম। শুরুতেই আমি এসব জেলার বিভিন্ন গ্রামে চলে যেতাম। সেখানকার মানুষ আর ভৌগোলিক অবস'ান সম্পর্কে ধারণা হল। লক্ষ করলাম, মানুষের জীবনযাত্রার মান খুবই সাধারণ। খাদ্যাভাব লেগেই আছে। মুখে খুব একটা হাসি নেই, পরনের কাপড়েও মলিনতার ছাপ। যে কোন ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা পাওয়ার জন্য তারা ব্যাকুল। অংশগ্রহণমূলক গ্রামীণ সমীক্ষার মাধ্যমে অতিদরিদ্র কর্মসূচির সদস্য নির্বাচন করা হল। এই সমীক্ষা করতে গিয়ে সমস্যা হয় নি। ওখানকার গ্রামের মানুষেরা ঠিকমতোই সহযোগিতা করেছেন।   

এরপর নির্বাচিত সদস্যদেরকে জীবিকার্জনের প্রশিক্ষণ প্রদান শুরু হল। সরকারি ও ব্র্যাক কর্মকর্তা, কমিউনিটি সদস্যদের মতামত ও সিদ্ধানে-র ভিত্তিতে অতিদরিদ্র পরিবারগুলোকে ভাল মানের পশুসম্পদ (গরু, ভেড়া, ছাগল) প্রদান করা হল। সম্পদ হস-ান-রের সেই দৃশ্যের কথা কোনদিন ভুলব না। অতিদরিদ্র সদস্যদের মুখে সুখের হাসি দেখে আমার চোখে পানি এসে গিয়েছিল। আমার মনে হয়েছিল, এখানে কাজ করতে এসে জীবন সার্থক হয়েছে। গত আগস্ট মাসে বামিয়ানে ১০০টি, ইয়োকালংয়ে ১৫০টি এবং পাঞ্জাবে ১৫০টি পরিবারের কাছে পশুসম্পদ হস-ান-র করা হয়। এগুলোকে তারা নিজের সন-ানের মতো লালনপালন করতে লেগে গেল। কাজের প্রতি তাদের ঐকানি-ক আগ্রহ ও ভালবাসা দেখে বুঝতে পারলাম, আমাদের কর্মসূচির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ভালভাবেই বাস-বায়িত হবে। শুধু সম্পদ নয়, তাদের প্রতিমাসে দেড় হাজার আফগানিও প্রদান করা হয়। জীবিকার্জনের পাশাপাশি তাদেরকে স্বাস'্য ও সামাজিক সেবাও প্রদান করা হচ্ছে।

আফগানিদের তুলনায় বাংলাদেশের অতিদরিদ্র সদস্যদের জীবনযাত্রার মান খুবই নিচু। এর মূল কারণ বাংলাদেশে জনসংখ্যার তুলনায় সম্পদ কম। প্রতি বছর প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে আমাদের দেশের লোকেরা অতিদরিদ্র পর্যায়ে চলে যায়। পক্ষান-রে আফগানিস-ানে অনেক সম্পদ রয়েছে। কিন-ু তার সুষ্ঠু ব্যবহার নেই। সম্পদের তুলনায় জনসংখ্যার ঘনত্ব অনেক কম। এখানে ব্র্যাকসহ জাতীয় ও আন-র্জাতিক পর্যায়ের প্রায় ৪৫টি সংস'া দারিদ্র্য বিমোচনের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি পরিচালনা করছে। বামিয়ান প্রদেশের অতিদরিদ্র জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান ক্রমশ উন্নতির পথে অগ্রসর হচ্ছে।

মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম
এরিয়া ম্যানেজার-অতিদরিদ্র কর্মসূচি
বামিয়ান প্রদেশ-আফগানিস্থান


আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা